আমাদের সম্পর্কে

শিক্ষার্থীদের জন্য ই-সচেতনতা

আমরাঃ

ডিনেট দীর্ঘদিন ধরেই তথ্য প্রযুক্তি ভিত্তিক সমাজ বিনিমার্ণে, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগসহ বিভিন্ন সরকারি এবং বেসরকারি সংগঠনের সঙ্গে কাজ করে যাচ্ছে। ডিনেট বর্তমানে আইসিটি এবং উদ্ভাবনের শক্তিকে কাজে লাগিয়ে সমাজের মানুষের সেবার জন্য বিভিন্ন খাতে অবদান রাখছে।

আমাদের লক্ষ্যঃ

সারাদেশের শিক্ষার্থীদের আরো সুরক্ষিত ইন্টারনেট ব্যবহারে সচেতনতা সৃষ্টি করতে ডিনেট, ইউএসএআইডি’র ‘অবিরোধঃ সহনশীলতার পথে’ প্রকল্পের সহায়তায় ‘উগ্রবাদের বিরুদ্ধে শিক্ষার্থীদের জন্য ই-সচেতনতা’ প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। এই প্রচেষ্টাকে সফল করতে অংশীদার হিসেবে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, আমেরিকান ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি - বাংলাদেশ, বাংলাদেশ এসোসিয়েশন অফ সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস, গুগল ডেভেলপার গ্রুপ ক্লাউড বাংলা, ঢাকা ট্রিবিউন, সমকাল, প্রথম আলো এবং কিশোর আলো এক সঙ্গে কাজ করছে।

আমাদের উদ্যোগঃ

শিক্ষার্থীদের সুরক্ষিত ইন্টারনেট ব্যবহারে দক্ষতা বৃদ্ধি এবং সাইবার নিরাপত্তা বিষয়ে সচেতনতা গড়ে তুলতে ডিনেট একটি ই-লার্নিং প্ল্যাটফর্ম তৈরি করেছে। শিক্ষার্থীদের ইন্টারনেটে সুরক্ষা, ব্যক্তিগত গোপনীয়তা, নিরাপত্তা, ডিজিটাল আইন, ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ব্যবহারের নিয়মাবলী, সাইবার অপরাধ, গুজব, অনলাইনে সহিংস উগ্রবাদের প্রচারে বিরোধিতা, মিথ্যাচার ও ভুল খবর প্রচার এবং এ সংক্রান্ত আরো অনেক বিষয়ে তথ্য থাকছে এই প্ল্যাটফর্মে।

এই ই-লার্নিং প্ল্যাটফর্মে শিক্ষার্থীদের ইন্টারনেটের নিরাপদ ব্যবহার সম্পর্কে সচেতন করার জন্যে থাকছে বিভিন্ন কন্টেন্ট এবং সেই সম্পর্কিত ২০ রাউন্ড কুইজ। প্রতি রাউন্ডে সেরা ১০ বিজয়ীর জন্যে থাকছে আকর্ষণীয় পুরষ্কার। সবগুলো কুইজে অংশগ্রহণকারীদের মধ্য থেকে সবচেয়ে বেশি নাম্বার প্রাপ্ত ২০০ শিক্ষার্থী সুযোগ পাবে বাংলাদেশের প্রথম ই-সচেতনতা অলিম্পিয়াড সাইবার চ্যাম্পে এবং তাদেরই একজন হবে বাংলাদেশের প্রথম সাইবার চ্যাম্প!

আমরা সরাসরি আসছি ঢাকা, চট্টগ্রাম ও রাজশাহীর ১০০টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে, সেখানে সুরক্ষিত ইন্টারনেট ও এর বিভিন্ন দিক নিয়ে আয়োজন করবো লার্নিং সেশন। প্রতিটি লার্নিং সেশনের সর্বোচ্চ স্কোরার সহ সেরা ১৫০ স্কোরার হবে ‘ক্যাম্পাস সাইবার চ্যাম্প’। তারাও আসবে সাইবার চ্যাম্প অলিম্পিয়াডে। তাদের সাথে আরও আসবে উক্ত ১০০ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোতে করা পিয়ার লার্নিং সেশন থেকে ৫০ জন শিক্ষার্থী ‘ভলান্টিয়ার সাইবার চ্যাম্প’ হিসেবে।

তাহলে আর দেরি কেন? রেজিস্ট্রেশন করো, জানো নতুন সব তথ্য আর খেলো মজার কুইজগুলো।

আমাদের সম্পর্কে